চিকিৎসা পদ্ধতি

আসসালামু আলাইকুম। রাবেয়া হোমিও হলে আপনাকে স্বাগতম

ডা. বেনজীর বিশ্বের ১ নং হোমিওপ্যাথ (১৯৯৬ সালে অলটারনেট নোবেল বিজয়ী)

প্রফেসর জর্জ ভিথোলকাসের নিকট প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। বিস্তারিত

ডা. বিএম বেনজীর আহমেদ, ক্ল্যাসিক্যাল হোমিওপ্যাথ, পরিচালক (বিপিএটিসি, সাভার, ঢাকা)
বিএসএস (অনার্স) ও এমএসএস (আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, ঢা. বি)
ডিএইচএমএস (ঢাকা), ডিসিএইচ (আইএসিএইচ, গ্রীস), এমবিএ (অষ্ট্রেলিয়া)
বিএসসি (সাইকোলজি)

লীন এন্ড হেলদি কোর্স (সুইজারল্যান্ড)

আমাদের চিকিৎসা সেবা নিতে নিচের নিয়ম অনুসরণ করবেন।

১. এ্যাপয়েন্টমেন্টঃ ফোন করে বা এ্যাপয়েন্টমেন্ট বুকিং ফর্ম পূরণ করে এ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে হবে। ফরমটি পাওয়ার পরই আমরা প্রয়োজনীয় নির্দেশনা, চিকিৎসা খরচ ইত্যাদি ই-মেইল/ফোন করে জানিয়ে দেই। এ্যাপয়েন্টমেন্ট বুকিং ফরম

২. কনসাল্টেশনঃ রোগীকে দেয়া সময়ে তার যাবতীয় লক্ষণাবলী, রিপোর্ট ইত্যাদি সংগ্রহ করে ও অনলাইন সফটওয়্যারে তা বিশ্লেষণ করে রোগীর জন্য প্রযোজ্য ওষুধ নির্বাচন করে রোগীকে প্রদান করা হবে।

৩. অনলাইন চিকিৎসাঃ অনলাইন সেবাদানে আমরা ফেসবুক মেসেঞ্জার, ক্ষেত্রবিশেষে ফোনের মাধ্যমে রোগীর লক্ষণাবলী, পরীক্ষার রিপোর্ট ইত্যাদি সংগ্রহ করি। অনেক সময় একাধিক বার রোগীকে অনলাইনে আসার দরকার হয়। লক্ষণাবলী বিশ্লেষণের পর নির্বাচিত ওষুধ কুরিয়ারে ওষুধ প্রেরণ করি। জটিল-ক্রণিক রোগীকে অন্তত ১ বার সরাসরি চেম্বারে আসতে অনুরোধ করি।

৪. অনলাইন রোগীর খরচ প্রেরণঃ অনলাইন রোগীর চিকিৎসার খরচ অগ্রিম পাওয়ার পরই ওষুধ পাঠানো হবে। চিকিৎসা খরচ প্রেরণ

৫. ফলোআপঃ ক্রণিক রোগীর ক্ষেত্রে ৪-৬ সপ্তাহ অন্তর ফলোআপ করা হবে। একিউট রোগী প্রয়োজন মত যে কোন সময়ে ফলোআপ দিতে পারেন। সকল ক্ষেত্রেই পূর্বের মত এ্যাপয়েন্টমেন্ট নিয়ে পরবর্তী সকল ধাপ অনুসরণ করতে হবে।

যে ৯ টি কারণে আপনি আমাদের সেবা নিতে ইচ্ছুক হবেনঃ

১। সাশ্রয়ী খরচে চিকিৎসাঃ আমাদের চিকিৎসা খরচ  অনেক হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারের চেয়ে তুলনামূলকভাবে অনেক কম। 

২। অনলাইন সফটওয়্যারের ব্যবহারঃ আমরা সকল রোগীর লক্ষণাবলী বিশ্বসেরা হোমিওপ্যাথ প্রফেসর জর্জ ভিথোলকাস ও তার টীম কর্তৃক প্রস্তুতকৃত অত্যাধুনিক অনলাইন সফটওয়্যার VithoulkasCompass দ্বারা  বিশ্লেষণ করেই সঠিক ওষুধ নির্বাচন করি।

৩। ব্যক্তিগত যত্নঃ রাবেয়া হোমিও হলে প্রতিটি রোগীকে যথেষ্ট সময় দিয়ে অত্যন্ত যত্ন সহকারে দেখা হয়। হলিস্টিক উপায়ে রোগীর প্রতিটি শারীরিক, আবেগিক ও মানসিক লক্ষণাবলী অত্যন্ত নিবিড়ভাবে সংগ্রহ করে তা বিশ্লেষণ করা হয়।

৪। মনোস্তাত্বিক কাউন্সেলিং: প্রয়োজন হলে মানসিক/আবেগিক লক্ষণের প্রাধান্যযুক্ত রোগীকে আমরা সাইকোলজিক্যাল কাউন্সেলিং প্রদান করি। যা রোগীর জন্য অত্যন্ত ফলপ্রদ।

৫। ফ্রি কন্সালটেশনঃ জরুরী প্রয়োজনে নির্ধারিত সাক্ষাত বা ফলোআপের বাইরেও আমরা রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা পরামর্শ দিয়ে থাকি।

৬। আমাদের ই-মেইল সেবাঃ চিকিৎসা সেবা গ্রহণের পূর্বে বা চিকিৎসাকালীন আমাদেরকে যে কোন প্রশ্ন বা আপনার অবস্থা জানিয়ে প্রশ্ন করতে পারেন। আমরা ৬-১২ ঘন্টার মধ্যে আপনার ইমেইলের জবাব দেই।

৭। একিউট ও ক্রণিক রোগীর চিকিৎসাঃ আমরা প্রধানত ক্রণিক রোগীর চিকিৎসা দিলেও যখনই প্রয়োজন তখন সকল প্রকার একিউট রোগীকে সফল চিকিৎসা দিয়ে থাকি।

৮। বিনামূল্যে সহায়ক চিকিৎসাঃ আমরা রোগীকে চিকিৎসার পাশাপাশি বিনামূল্যে রোগীর জন্য প্রয়োজনীয় জীবনযাত্রার পরিবর্তন, পুষ্টিকর খাদ্যাভ্যাস, শরীরচর্চা ইত্যাদির উপদেশ দিয়ে থাকি।

৯। গ্যারান্টিঃ আমরা রোগীকে সর্বোচ্চ মানের চিকিৎসা সেবা দেয়ার ব্যাপারে কোন আপোস করিনা। আমরা কখনও চিকিৎসায় কোন প্রকার গ্যারান্টি দেই না।

আপনার যে কোন প্রশ্ন বা মন্তব্যের জন্য নির্ধারিত ফরমটি পুরণ করে পাঠান বা ফোন (০১৭৩৩৭৯৭২৫২) করুন। ডাক্তারকে প্রশ্ন করুন

error: Content is protected !!