”গোপন রোগ” বলে কোন রোগ নেই। জানিনা কে এমন নামকরণ করলো। গোপন রোগের নামে রোগী যে রোগের চিকিৎসা চান তা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই নিজের অনিয়ম, নৈতিক অধঃপতন তথা খারাপ অভ্যাসজনিত সৃষ্ট কিছু যৌন সমস্যা। এক্ষেত্রে উপদেশ অধিকাংশ ক্ষেত্রে চিকিৎসার কোনই দরকার নেই। আর কারো সাথে নিজের যৌন শক্তি-সামর্থ কতটা তা শেয়ার করার দরকার নেই কারণ মূলত: এটাই মানসিক দুর্বলতা তৈরী করে।

তাহলে করণীয় কি? খারাপ অভ্যাস ছেড়ে দিলে রোগী শৃংখলায় ফিরবেন এবং সমস্যার সমাধান হবে ইনশাল্লাহ। কারো কারো ক্ষেত্রে সমস্যার ভয়াবহতার জন্য চিকিৎসা লাগতেও পারে। কিন্তু সতর্ক থাকতে হবে রোগীকে। কারণ, বহু চিকিৎসক নামধারী ব্যক্তি রোগীর দুর্বলতার সুযোগে পয়সা কামাচ্ছেন। চারিত্রিক স্খলন ছাড়াও বহু কারণে যৌন জীবন ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে যেমন- যে কোন রোগের ভুল চিকিৎসা বা চিকিৎসার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, অত্যন্ত মানসিক চাপ, শারীরিক ও মানসিক দুর্ঘটনাজনিত ট্রমা, দাম্পত্য কলহ ইত্যাদি। সেক্ষেত্রে অবিলম্বে চিকিৎসা নেয়া বাঞ্চনীয়।

যৌন রোগ বলতে মূলত: সিফিলিস, গণোরিয়া, এইডস্ ইত্যাদিকে বুঝায় যা হোমিও চিকিৎসা ব্যতীত নির্মুল হবার নয়। এ্যান্টিবায়োটিকে রোগ সাময়িক দমন হয় বা সুপ্ত অবস্থায় থাকে যা পরবর্তী বংশধরকেও ভুগায়। এ সব রোগে আক্রান্ত হলে জরুরী পূর্ণ চিকিৎসা নিতে হবে।

ডাঃ বেনজীর। ০১৭৩৩৭৯৭২৫২, বিস্তারিতঃ drbenojir.com/contact/

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.